ব্রেকিং নিউজ
লুৎফর রহমান এর কলামঃ একই সমতটে পতনশীল পুঁজিবাজারে নীরবতা, সবাই কি দর্শক ?  মতলবের কেএফটি কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্রী সানিয়া’র জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন টস জিতে জিম্বাবুয়েকে ব্যাটিংয়ে পাঠাল বাংলাদেশ নিউইয়র্কে বিএনপির ৩ শাখা কমিটির ভোটাভুটির মাধ্যমে কাউন্সিল সম্পন্ন অভ্যন্তরীণ কারণে ভারতের পররাষ্ট্র সচিবের সফর স্থগিত : পররাষ্টমন্ত্রী জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম থেকে ব্যারিস্টার খোকনকে অব্যাহতি বিএনপির আন্তর্জাতিক সম্পাদকের অসাংগঠনিক তৎপরতায় যুক্তরাষ্ট্র বিএনপিতে তোলপাড় টি-টোয়েন্টিতেও হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশের মেয়েরা ‘স্বাধীনতা পুরস্কার ২০২৪’ পেলেন কুড়িগ্রামের এসএম আব্রাহাম লিংকন

বিয়ের তিন দিনেই বালিশচাপায় স্বামীকে মেরে ফেলল বউ!

Ayesha Siddika | আপডেট: ২৯ আগস্ট ২০২৩ - ০৯:৩১:৫৫ পিএম

ডেস্ক নিউজ : এ ঘটনায় নিহত আব্দুর রাজ্জাকের মা বাদী হয়ে নববধূ শাপলা খাতুনকে আসামি করে বাগমারা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আর গ্রেফতারের পর প্রাথমিকভাবে স্বামীকে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেছেন নববধূ। তবে ঠিক কী কারণে বিয়ের মাত্র তিন দিন পরই নববধূ এমন নির্মমভাবে তার স্বামীকে হত্যা করেছেন তা এখনও নিশ্চিত করে বলতে পারেনি পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা।

এছাড়া হত্যার কথা স্বীকার করলেও পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে এর সুস্পষ্ট কারণ সম্পর্কে মুখ খোলেননি শাপলা। সোমবার (২৮ আগস্ট) রাতে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার সাঁইপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। বিয়ের মাত্র তিন দিন পর নববধূর বালিশ চাপায় মারা যান আব্দুর রাজ্জাক। এতে শোকে কাতর হয়ে পড়েছেন পরিবারের সদস্যরা।

রাজ্জাকের বোন আফরোজা বানু জানান, গত ২৫ আগস্ট পারিবারিকভাবেই তার ভাই আব্দুর রাজ্জাকের সঙ্গে বিয়ে হয় মোহনপুর উপজেলার শাপলা খাতুনের। বিয়ের পর সবকিছু ঠিকঠাকই চলছিল। কিন্তু সোমবার (২৯ আগস্ট) রাতে ঘরের দরজা বন্ধ করে টিভি দেখছিলেন তার ভাই রাজ্জাক ও নববধূ শাপলা খাতুন। এরপর ঘরের ভেতর থেকে হাঠাৎ চিৎকারের আওয়াজ শোনা যায়। এর কিছুক্ষণ পর বেরিয়ে আসেন শাপলা। এ সময় ঘরে ঢুকে রাজ্জাককে মৃত অবস্থায় বিছানায় পড়ে থাকতে দেখেন স্বজনরা। পরে তাকে ঘরের দরজা আঁটকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করার বিষয়টি স্বীকার করলে শাপলাকে পুলিশের হাতে তুলে দেন তারা।
এ ঘটনায় নিহত রাজ্জাকের মা ফুলবাস বিবি বাদী হয়ে নববধূ শাপলা খাতুনের বিরুদ্ধে বাগমারা থানায় গিয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। যদিও এর আগেই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। থানায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শাপলা পুলিশের কাছেও তার স্বামী রাজ্জাককে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে এর কারণ জানাননি।
রাজশাহীর বাগমারা থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) সোহেল খাঁন জানান, হত্যা মামলার পর শাপলাকে আরও ব্যাপকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কিন্তু তিনি কারণ বলেননি। তাই জিজ্ঞাসাবাদ শেষ আজ মঙ্গলবার বিকেলে অভিযুক্ত শাপলাকে আদালতের মাধ্যমে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
এছাড়া ময়নাতদন্ত শেষে রাজ্জাকের মরদেহ দাফন করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। তারা হত্যার কারণ জানতে পরে শাপলাকে আদালতের মাধ্যমে আবারও নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন। পরিবারের সদস্যদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করবেন। মামলাটি গুরুত্বসহকারে তদন্ত হচ্ছে বলেও জানান, রাজশাহীর বাগমারা থানার এই পুলিশ কর্মকর্তা।

 

 

কিউটিভি/আয়শা/২৯ অগাস্ট ২০২৩,/রাত ৯:৩০

▎সর্বশেষ

ad