নাসরিন খান এর জীবনালেখ্যঃ ভিন্ন রকম কষ্ট

superadmin | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ - ১২:০১:০৮ এএম

 ভিন্ন রকম কষ্ট
—————–
যদি কখনো মনে হয় তুমি খুব কষ্ঠে আছো। তুমি ভালো নেই মোটেও। তোমার অস্থিরতা বেড়ে গেছে। জীবন তোমার কাছে দূর্বিষহ হয়ে উঠেছে। অথচ সবাই তোমার আশেপাশেই আছে। তবু্ও নিজেকে বড্ড বেশী অসহায় ও তুচ্ছ মনে হচ্ছে। তুমি একদিন সময় করে বেড়িয়ে পড়ো। রাস্তার রিক্সাওয়ালাকে দেখো সে প্রতিদিন এই রোদ বৃষ্ঠিতে কষ্ট করে রিক্সা চালাচ্ছে নিজের সংসার চালোনোর জন্য। বয়সের তোয়াক্কা না করে। মাত্র ৫০ টাকার জন্য কুলি দুই মন চাল ৭/৮ তালার উপর সিড়ি বেয়ে নিয়ে যাচ্ছে। নিজের কষ্ট না দেখে শুধু সংসারের কথা ভেবে। বাচ্চা গুলো কল কারখানায় , হোটেলে, দোকানে কাজ করছে শুধু পেটের দায়ে বেচে থাকার জন্য। ওদের লড়াই এটা।

যদি তাতেও মনে সান্ত্বনা না পাও তবে সরকারি হাসপাতাল গুলোতে চলে যাও। দেখবে কতো রকমের রুগী সেখানে অসহ্য যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে কষ্ট পাচ্ছে। একটা বেডের অভাবে মাটিতে শুয়ে আছে একটু ভালো চিকিৎসা পাওয়ার জন্য একটু ভালো থাকার জন্য। ওয়ার্ডে থাকার জায়গা নেই বাইরে বারান্দায় রোগীরা সব মাটিতে শুয়ে। আমি এমনো দেখেছি লাশের পাশে রোগী শুয়ে আছে বারান্দায়। প্রতিদিন এতো মানুষ মারা যায় হাসপাতাল গুলোতে যে লাশ ঘরে লাশ রাখার জায়গাও হয়না। তাই বাধ্য হয়ে লাশ বারান্দায় রাখতে হয়। লাশের আত্নীয়রা টাকা ছাড়া অনেক সময় সময়মত লাশ নিয়ে যেতে পারেনা। কতো রোগ আর রুগী হাসপাতালে তার কোনো হিসেব নেই। এক এক জনের এক এক রকম কষ্ট। কাছ থেকে না দেখলে বিশ্বাস করা যায়না। কি যে কষ্ট পাচ্ছে মানুষ গুলো !

সেই তুলনায় আমরা অনেক শান্তিতে আছি ভালো আছি তবু্ও আমাদের হা-হুতাশ যায়না। আমরা কেবল মন খারাপ করি কেবলই কষ্ট পাই। আসলে কষ্ট পাওয়ার ব্যাপার গুলো এড়িয়ে চললেই হয়। তোমাকে কেউ মনে কষ্ট দিয়েছে অবহেলা করেছে তুমি নীরবে সয়ে যায় চুপ হয়ে যাও তবেই তুমি ভালো থাকবে। নিজেকে ভালো রাখো সবাই ভালো থাকুক এই বিশ্বাসে এই আশ্বাসে নিজেকে সুন্দর রাখো।

 

 

লেখিকাঃ নাসরিন খান এর বসবাস ঢাকার পল্লবীতে। শখের বসে লেখালেখি করেন। বন্ধু বৎসল একজন মানুষ। সহপাঠী বন্ধুদের নিয়ে ফেসবুকে গ্রূপ এক্টিভিটিজে যথেষ্ট সময় দেন। মানবিক আচরণের কারনে বন্ধু মহলে বিশেষ ভাবে সমাদৃত। নাসরিন খান এর ফেসবুক টাইমলাইন থেকে এই জীবনালেখ্য টি সংগৃহিত।

 

 

 

০৮.০৯.২০২২/ রাত ১১.৫০

▎সর্বশেষ

ad