হিরো আলম

superadmin | আপডেট: ৩১ জুলাই ২০২২ - ১১:৩০:৩৬ পিএম

হিরো আলম
—————

পুলিশ প্রশাসনের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বললাম আলমকে আপনারা তো হিরো বানিয়ে দিলেন । এখন বিদেশে অনেকে ওকে সত্যিকারের হিরো ভেবে পোস্ট দিচ্ছে। সম্পূর্ণ অশিক্ষিত আলম যদি বাংলাদেশের হিরোদের প্রতিচ্ছবি হয় ইজ্জত আর থাকে না।

ওকে ধরে এনে শাসন কিংবা নিউজ করার প্রয়োজন ছিল কি ? টেলিফোনে ধমক দিলেই ঠিক হয়ে যেতো। এ যেন মশা মারতে কামান দাগানোর মত অবস্থা।

ইউটিউবে ভুল ভাল সুর আর বগুড়ার আঞ্চলিক উচ্চারণে গান গেয়ে ডায়লগ বলে লোক হাসিয়ে বিশাল ফ্যান ফলোয়ার জোগাড় করেছে স্বল্প সময়ে।

সস্তা পরিচিতি পেয়েই মাথা নষ্ট। ধরা কে সরা জ্ঞান করে নিজের মা-বাবা, স্ত্রী, ছোট ছোট তিন সন্তান, পরিবার পরিজন ফেলে ঢাকায় এসে রূপবতী আরেক টিক টকারের সাথে নতুন সংসার শুরু।এখানেই শেষ নয় এরপর এমপি হওয়ার বাসনা জাগে ডিশ ব্যবসায়ী আলমের ।
রবীন্দ্র সঙ্গীত বিকৃত করে গাওয়ার অপরাধে যারা ওর বিরুদ্ধে মামলা ঠুকেছেন তাঁদেরও উচিত হয়নি ওকে আমলে নেওয়া। কারণ মানুষ ঠিকই সঠিকটা বেছে নিবে।

পুলিশ প্রশাসনের অভিযোগ শত চেষ্টা করেও তাঁকে শোধরানো যাচ্ছিল না। লম্বা চুল রেখে কনস্টেবলের ড্রেস পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পদে যা ইচ্ছা তাই শব্দ চয়ন, ভুল ভাল উচ্চারণ তাঁদের জন্য মর্যাদা হানিকর । জনগণ ভুল আর মিথ্যা ম্যাসেজ পেয়ে বিভ্রান্ত হচ্ছে। সংশোধন কল্পে তাঁকে ডেকে নিয়ে বুঝানো হয়েছে কেবলই ।

পুলিশের অভিনয় আর ড্রেস ব্যাবহার করতে যে অনুমতি বা ছাড়পত্র নিতে হয় তাও নাকি জানা ছিল না আলমের।

আগে পাড়ায় মহল্লায় ভাঁড়রা নানা রূপে নিজেদের সাজিয়ে মানুষ হাসিয়ে পয়সা রোজগার করতো । হালে তথ্যপ্রযুক্তির যুগে হিরো আলমরা সেই ভাঁড়দের অভাব পুরন করছে ঠিকই কিন্তু সীমা ছাড়িয়ে গেলেই সমস্যা তথা মুশকিলে পরতে হচ্ছে ।

নারী-পুরুষ সমস্ত টিক টকার দের জন্য নিদৃষ্ট সীমারেখা বেঁধে দেওয়া বিশেষ করে অশ্লীলতা বন্ধ করা জরুরী হয়ে পরেছে।
নতুবা ইয়াং জেনারেশন অশ্লীলতাকে স্বাভাবিক ভেবে অনুপ্রাণিত হতে পারে। তথ্য প্রযুক্তির অবাধ প্রবাহে কি এক কঠিন সময়ের ভেতর দিয়ে পার হতে হচ্ছে আমাদের নতুন প্রজন্মকে।

 

 

লেখিকাঃ খুজিস্তা নূর ই নাহরীন নিয়মিত লেখালেখি করেন। বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর লেখা ঝড় তুলে। পূর্বপশ্চিমবিডিনিউজ এর সাবেক সম্পাদিকা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রী খুজিস্তা নূর ই নাহরীন বর্তমানে মডার্ন সিকিউরিটিজ লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তাঁর টাইমলাইন থেকে পোস্টটি সংগৃহিত।

 

কিউএনবি/বিপুল/৩১.০৭.২০২২/ রাত ১১.২০

▎সর্বশেষ

ad