ট্রান্স ফ্যাটের কারণে বছরে প্রায় ৫ লাখ মানুষ মারা যায়

Rakhi Majumder | আপডেট: ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ - ১১:৫৭:১১ এএম

লাইফ ষ্টাইল ডেস্ক : ট্রান্স ফ্যাট সম্পূর্ণ বর্জন করার আহ্বান জানিয়েছে ডব্লিউএইচও বা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এটি এমন একটি কৃত্রিম বিষাক্ত রাসায়নিক, যা সাধারণত প্যাকেটজাত খাবার, সেঁকা পণ্য, রান্নার তেল এবং স্প্রেডগুলিতে পাওয়া যায়। প্রতি বছর প্রায় পাঁচ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যুর জন্য দায়ী এই ট্রান্স ফ্যাটি অ্যাসিড বা হাইড্রোজেনেটেড অয়েল।

ডব্লিউএইচও রিপোর্ট করেছে, ৫ বিলিয়ন অর্থাৎ ৫০০ কোটি মানুষ এই বিষাক্ত পণ্যের সংস্পর্শে আসছে, যা তাদের হৃদরোগ এবং মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়িয়েছে।

জনস্বাস্থ্য বিষয়ক উদ্যোগ, রেজলভ টু সেভ লাইভস-এর সভাপতি এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টম ফ্রাইডেন বলেছেন, বিশ্বব্যাপী খাদ্য থেকে ট্রান্স ফ্যাট নির্মুল করা গেলে, ২০৪০ সালের মধ্যে কার্ডিওভাসকুলার বা হৃদরোগের হাত থেকে প্রায় ১ কোটি ৭০ লাখ মানুষের মৃত্যু রোধ করা সম্ভব।

তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশের সরকার ডব্লিউএইচও-র বেস্ট প্র্যাক্টিস নীতি প্রণয়নের মাধ্যমে এই প্রতিরোধযোগ্য মৃত্যু বন্ধ করতে পারে।

তিনি উল্লেখ করেছেন, ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ, বিশেষ করে মেক্সিকো, নাইজেরিয়া এবং শ্রীলঙ্কা, এই জীবন রক্ষাকারী নীতিগুলি পাস করার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে। তার মতে, এখন এই কাজ সম্পন্ন করতে দরকার কেবল একটা মৃদু বল প্রয়োগ।

ফ্রাইডেন উল্লেখ করেছেন, “কোনও একটি দেশে এ বিষয়ে নীতি প্রয়নন করা হলে, তা অন্য দেশকেও একই পদক্ষেপ নিতে উৎসাহিত করতে পারে। আমরা আশা করছি, ভারত, বাংলাদেশ এবং ফিলিপাইনের মতো দেশের নেতারা সমস্ত দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের জন্য উদাহরণ হয়ে উঠবে।”

ফ্রাইডেন বলেন, কেবল মাত্র কয়েকটি বড় কোম্পানি আছে, যারা এই বিষাক্ত পণ্যটি তৈরি করে চলেছে।

তিনি আরও বলেন, এই সংস্থাগুলি নিয়ন্ত্রণে আসবে, যখন তারা দেখবে যে ট্রান্স ফ্যাটের দিন ফুরিয়ে আসছে।

ডব্লিউএইচও রিপোর্ট করেছে, বেশিরভাগ ট্রান্স ফ্যাট নির্মুল বিষয়ক নীতিমালা আমেরিকা এবং ইউরোপসহ কেবল ধনী দেশগুলিতেই প্রয়োগ করা হয়েছে এবং মধ্যম আয়ের দেশগুলির মধ্যে, ক্রমবর্ধমান সংখ্যক তা অনুসরণ করছে। তবে এখন পর্যন্ত নিম্ন আয়ের কোনও দেশ তা করেনি।

সূত্র: ভয়েস অব আমেরিকা

কিউটিভি/অনিমা/২৪ জানুয়ারী ২০২৩/সকাল ১১:৫৬

▎সর্বশেষ

ad