আফগানিস্তানে প্রকাশ্যে ৩ নারীসহ ১২ জনকে বেত্রাঘাত

Ayesha Siddika | আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০২২ - ০৭:১০:৪৬ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানের একটি ফুটবল স্টেডিয়ামে হাজার হাজার মানুষের সামনে তিন নারীসহ ১২ জনকে বেত্রাঘাত করা হয়েছে।  এই ১২ জনকে ব্যভিচার, ডাকাতি এবং সমকামী যৌনতাসহ ‘নৈতিক অপরাধের’ দায়ে সাজা দেওয়া হয় বলে একজন তালেবান কর্মকর্তা বিবিসিকে বলেছেন। এক মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো দেশটিতে তালেবান প্রকাশ্যে এমন সাজা কার্যকর করল। তালেবানের প্রধান নেতা আখুন্দজাদার নির্দেশনার পর তালেবানের এক মুখপাত্র বলেছিলেন, ডাকাতি, অপহরণ, রাষ্ট্রদ্রোহের মতো কিছু অপরাধের শাস্তি অবশ্যই ইসলামী শরিয়াহ্‌ আইনের ব্যাখ্যা অনুযায়ী দিতে হবে।

এ ধরনের ঘটনায়, ৯০-এর দশকে তালেবান যে কঠোর শাসন চালিয়েছিল, সেটিই ফিরে আসার আশঙ্কা করছেন অনেকে। লোগার অঞ্চলের তালেবান মুখপাত্র মানসুর মুজাহিদ বলেছেন, ‘বেত্রাঘাতের পর তিন নারীর সবাইকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। পুরুষদের মধ্যে কয়েকজনকে জেলে নেওয়া হয়েছে। তাদের ১৯ থেকে সর্বোচ্চ ৩৯ বার বেত দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। ’ একজনকে সর্বোচ্চ ৩৯টি বেত্রাঘাত করা হয়। গত সপ্তাহে উত্তর আফগানিস্তানের তাকহার প্রদেশে একইভাবে বেত্রাঘাতের মাধ্যমে ১৯ জনকে সাজা দেওয়া হয়েছিল।

শরিয়া আইনে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড, পাথর নিক্ষেপ এবং অঙ্গচ্ছেদের বিধান রয়েছে। অপরাধের মাত্রা অনুযায়ী নির্ধারণ করা হয় কোন ধরনের শাস্তি দেওয়া হবে। গত বছরের আগস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যায়। পরে তারা সরকার গঠন করে। ক্ষমতায় এসে তালেবান প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, অতীতের মতো তারা এবার দেশ শাসন করবে না।

সূত্র : বিবিসি

 

 

কিউটিভি/আয়শা/২৪ নভেম্বর ২০২২,খ্রিস্টাব্দ/সন্ধ্যা ৭:০৮

▎সর্বশেষ

ad