প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ আসার পর যা বললেন সেই রত্না

admin | আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০২২ - ০৬:২৬:৩৩ পিএম

ডেস্কনিউজঃ রাজধানীর তেঁতুলতলা মাঠ শিশুদের খেলার জন্য রাখতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে স্বস্তি প্রকাশ করে এই মাঠ রক্ষা করতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হওয়া সমাজকর্মী সৈয়দা রত্না বলেছেন, ‘বিষয়টি ভালোভাবেই দেখছি। প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দেওয়ায় এখন আর ভয় নেই।’

রত্না গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এই মাঠটিকে সদ্ব্যবহার করতে চাই বাচ্চাদের জন্য। বাচ্চারা যেন সত্যিকারের সাংস্কৃতিক, উদার মনোভাব নিয়ে বড় হতে পারে। ওদের বিকাশ যেন সঠিকভাবে হয়। এভাবেই যেন ব্যবহার করতে পারি।’

তবে স্থানটি পুলিশের কর্তৃত্বে থাকায় অস্বস্তি প্রকাশ করেন রত্না। পুলিশ ভবিষ্যতে আবার হয়ত মাঠটি নিয়ে অন্য কিছু ভাবতে পারে- এমন শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।

গত ৩১ জানুয়ারি মাঠটিতে তারকাঁটার বেড়া দিয়ে বেষ্টনী তৈরি করে পুলিশ। খেলার মাঠ হিসেবে পরিচিত জায়গাটি কলাবাগান থানা ভবন হওয়ার কথা রয়েছে। তবে থানা ভবন নির্মাণের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করেন আসছেন এলাকাবাসী।তেঁতুলতলা মাঠ রক্ষার অন্যতম আন্দোলনকারী ও সমাজকর্মী সৈয়দা রত্না এবং তার ছেলে ঈসা আব্দুল্লাহকে আন্দোলনরত অবস্থায় গত ২৪ এপ্রিল সকালে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। সেখানে তখন ছেলেকে নিয়ে তিনি ফেসবুক লাইভ করছিলেন। আটকের পর সারা দিন তীব্র প্রতিবাদের মুখে মধ্যরাতে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

এরপর পুলিশের পক্ষ থেকে সেখানে থানা ভবন নির্মাণের পক্ষে যুক্তি দেখানো হলেও বিশিষ্টজনসহ সবাই বিরোধিতা করতে থাকেন। এমন প্রেক্ষাপটে বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, তেঁতুলতলা এলাকার শিশুদের খেলার জন্য রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, জায়গাটি পুলিশকে অধিগ্রহণ করে দেওয়া হয়েছে। তাই এ জায়গা পুলিশেরই থাকবে।

এরপরই গণমাধ্যমকে সমাজকর্মী রত্না বলেন, ‘আমি প্রথম থেকে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করেছি। আমি প্রথম থেকেই জানি, এটি প্রধানমন্ত্রীর কানে গেলে এক সেকেন্ডও দেরি হবে না।’

কিউএনবি/বিপুল/২৮ এপ্রিল ২০২২খ্রিস্টাব্দ/ সন্ধ্যা ৬.১৮

▎সর্বশেষ

ad