শরীয়তপুরে কৃষি শুমারি কর্মীকে নির্যাতন মামলার আসামী জুয়েল গ্রেফতার

ডেস্ক নিউজ : শরীয়তপুরে কৃষি শুমারি ২০১৯ এর তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে মিজানুর রহমান নামে এক কর্মী নির্যাতনের শিকার হয়। এ ঘটনায় ১৬ জুন প্রকল্পের সুপারভাইজার ইয়াকুব আলী বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এই মামলার এজাহার নামীয় আসামী জুয়েল ও সন্দেহভাজন আল আমিন কোতোয়ালকে গ্রেফতার করে পালং মডেল থানা পুলিশ। আল আমিন ও জুয়েল চর সোনামুখী গ্রামের আ. সালাম কোতোয়ালের ছেলে। পরবর্তীতে জুয়েলকে আদালতে সোপর্দ করেছে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মৃত্যুঞ্জয়।

মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, ১৫ জুন শনিবার সকাল ৯টার দিকে সদর উপজেলার রুদ্রকর ইউনিয়নের চর সোনামুখী (ঘোড়ার ঘাট) এলাকার দাড়িয়া বাড়িতে ভিকটিম মিজানুর রহমান কৃষি শুমারির তথ্য সংগ্রহ করতে যায়। তখন স্থানীয় কতিপয় বখাটে এসে মিজানুরের সাথে খারাপ আচরণ করতে থাকে। মিজানুর তার পরিচয় দিয়ে কৃষি শুমারির পরিচয় পত্র প্রদর্শণ করে। তখন বখাটেরা মিজানুরকে পিটিয়ে ও কিল-ঘুষি মেরে আহত করে। সংবাদ পেয়ে মিজানুরের স্বজনরা দাড়িয়া বাড়ি থেকে মিজানুরকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় কৃষি শুমারি প্রকল্প সুপারভাইজর ইয়াকুব আলী বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় ১৬ জুন তারিখে পালং মডেল থানার ১৭ নম্বর মামলা দায়ের করে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে এজাহার নামীয় আসামী জুয়েল ও সন্দেহভাজন আল আমিন কোতোয়ালকে গ্রেফতার করে।আল আমিন ঘটনার সাথে জড়িত প্রমান না হওয়ায় ১৭ জুন জুয়েলকে আদালতে সোপর্দ করেছে এবং মুচলেকা রেখে আল আমিনকে পরিবারের জিম্মায় প্রদান করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মুত্যুঞ্জয় বলেন, এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে এজাহার নামীয় আসামী জুয়েলকে গ্রেফতার করা হয়। তখন আল আমিন এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি করে। তখন জুয়েল ও আল আমিনকে থানায় নিয়ে আসি। সোমবার জুয়েলকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

 

 

কিউটিভি/রেশমা/১৭ই জুন, ২০১৯ ইং/রাত ৮:৫১

শেয়ার করুন