দেড় কোটির বিনিময়ে স্বামীকে দ্বিতীয় বিয়ের অনুমতি

ডেস্কনিউজঃ দেড় কোটি রুপির বিনিময়ে প্রতারক স্বামীকে দ্বিতীয় বিয়ে করার অনুমতি দিয়েছেন এক নারী। এমন উদ্ভট ঘটনা ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভুপাল শহরে। ওই নারী জানিয়েছেন, এই টাকা পেলে তিনি তার স্বামীকে ছেড়ে দিতে রাজি আছেন। খবর ইন্ডিয়া ট্যুডে।

ভুপালের একটি পারিবারিক আদালতে প্রথম এ বিষয়টি সবার নজরে আসে। সে সময় দলিত সম্প্রদায়ের একটি কিশোরী তার বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলে যে, এক সহকর্মীর সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে।

এ ঘটনা নিয়ে প্রায়ই বাড়িতে বেশ ঝামেলা হতো। মেয়েটির দাবি, বাবা-মায়ের ঝগড়ার কারণে তাদের দুই বোনের পড়াশুনা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাদের অভিযোগ আমলে নিয়ে তাদের বাবা এবং তার সহকর্মীকে ডেকে কাউন্সেলিং করানো হয়।

পরবর্তীতে জানা যায় যে, ওই ব্যক্তির সঙ্গে তার যে সহকর্মীর সম্পর্ক রয়েছে সেই নারী তার চেয়েও বয়সে বড়। ওই ব্যক্তি তার সহকর্মীকে বিয়ে করতে চাইছিলেন। কিন্তু তার স্ত্রী কোনভাবেই ডিভোর্স দিতে রাজি হচ্ছিলেন না বলে সেটা সম্ভব হয়নি।

কিন্তু কয়েক দফা কাউন্সেলিংয়ের পর তারা একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে সক্ষম হন। ওই নারী জানান, তার স্বামী যাকে বিয়ে করছেন তার একটি অ্যাপার্টমেন্ট এবং নগদ ২৭ লাখ রুপি তাকে দেয়া হলেই তিনি ডিভোর্স দিতে রাজি আছেন। নগদ অর্থ ও অ্যাপার্টমেন্টের মূল্য একত্র করলে প্রায় দেড় কোটি রুপিতে দাঁড়ায়।

ওই নারীর মতে, বিয়ের এত বছর পরেও যে তাকে ভালোবাসে না তার সঙ্গে থাকার কোনো মানেই হয় না। সে কারণেই তিনি তার স্বামীকে ডিভোর্স দেয়ার চিন্তা করেছেন। তবে তিনি তার দুই মেয়ের খরচ বাবদ দেড় কোটি রুপি দাবি করেছেন। কারণ তিনি তার সন্তানদের ভালোভাবে মানুষ করতে চান।

বিপুল/৬ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ/সন্ধ্যা ৬:৫৫

শেয়ার করুন