তালেবানের সঙ্গে পাল্টাপাল্টি হামলা, নিহত ৫২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কাতারের দোহায় আফগান সরকার ও বিদ্রোহী গোষ্ঠী তালেবান শান্তি আলোচনার মধ্যে আফগানিস্তানে একে অপরের ওপর হামলা-পাল্টা হামলা অব্যাহত রয়েছে। সর্বশেষ কুন্দুজ প্রদেশে তালেবান যোদ্ধাদের লক্ষ্য করে একাধিক বিমান হামলা চালিয়েছে আফগান বিমানবাহিনী। শনিবারের এসব হামলায় অন্তত ৪০ জন তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে। সেই সঙ্গে ১২ বেসামরিক নিরীহ নাগরিক নিহত হয়েছে। এর মধ্যে নারী এবং শিশুও রয়েছে।

এছাড়া আরও ১০ জন আহত হয়েছে। বিমান হামলা ও হতাহতের তথ্য নিশ্চিত করেছেন আফগান কর্মকর্তারা। খবর আলজাজিরার। শনিবার সকালে খান আবাদ জেলার সেনা সদস্যদের অবস্থান লক্ষ্য করে তালেবানের হামলা চালানোর জবাবেই এ বিমান হামলা চালানো হয়। এ বিমান হামলায় কোনো বেসামরিক নাগরিক হতাহতের খবর নিশ্চিত করেনি আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে বেসামরিক নাগরিক হতাহতের বিষয়টি নিয়ে আফগান সরকারের পক্ষ থেকে তদন্ত চলছে।

টুইটারে এক বিবৃতিতে আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, শনিবার সকালে তালেবান যোদ্ধারা কুন্দুজ প্রদেশের খান আবাদ জেলায় অবস্থানস্থলে (আফগান সেনাবাহিনীর) হামলা চালিয়েছে। সক্রিয় আত্মরক্ষা প্রক্রিয়ায় সেনাবাহিনী হামলা প্রতিহত করেছে।’ তিনি জানান, ৩০ জনেরও বেশি তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুই কমান্ডার রয়েছেন। পাল্টা বিবৃতিতে তালেবান দাবি করে, হামলায় তাদের কোনো যোদ্ধা নিহত হয়নি। বরং ২৩ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। স্থানীয় হাসপাতালের পরিচালক মোহাম্মদ নাইম জানান, হাসপাতালে তিন নিহত ও তিন আহত বেসামরিক নাগরিককে নিয়ে আসা হয়েছিল।

পাল্টাপাল্টি হামলার পর সাধারণ মানুষের সুরক্ষার্থে মানবিক যুদ্ধবিরতির ডাক দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডন্ট আশরাফ ঘানি। এর আগেও আফগান সরকারের পক্ষ থেকে তালেবানদের উদ্দেশে এমন যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানানো হয়েছে। তবে তালেবানদের পক্ষ থেকে তা মেনে নেয়া হয়নি। আফগানিস্তানের দীর্ঘ ১৮ বছরের যুদ্ধে অবসানে সরকার এবং যুক্তরাষ্ট্র তালেবানের সঙ্গে যখন শান্তি চালিয়ে যাচ্ছে তখনই হামলার ঘটনা বেড়ে গেছে। এতে আবারও হুমকিতে পড়েছে শান্তি আলোচনা।

 

 

কিউটিভি/আয়শা/২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং/রাত ৮:৫৬

শেয়ার করুন