পাকিস্তানের ‘নাগরিকত্ব’ চাইলেন স্যামি

স্পোর্টস ডেস্ক : দুঃস্বপ্নকে পেছনে ফেলে ধীরে ধীরে গুছিয়ে উঠছে পাকিস্তান। তিন সংস্করণের ক্রিকেটই ফিরেছে দেশটি। বাংলাদেশসহ কয়েকটা দেশ ইতোমধ্যে পাকিস্তানে খেলে ফিরেছে। সবকিছুই চলছিল ঠিকঠাক। কিন্তু এর মধ্যে ঘটে গেল অপ্রত্যাশিত এক ঘটনা। তিন দিন আগে কোয়েটায় হয়েছে আত্মঘাতী বোমা হামলা। তাতে দেশটির নিরাপত্তা নিয়ে ফের শঙ্কা তৈরি হলো।

নিজেদের দেশকে নিরাপদ প্রমাণ করতে বেশকয়েক বছর ধরেই উঠেপড়ে লেগেছে পাকিস্তান সরকার। তবু বেশিরভাগ দলই যেতে চাচ্ছে না দেশটিতে। যে তালিকায় বিদেশি খেলোয়াড়দের সংখ্যাটাও বিশাল। তবে এবার অনেকটাই স্বস্তি দিচ্ছে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। সর্বোচ্চ সংখ্যক ৩৬ জন বিদেশি ক্রিকেটার অংশ নিচ্ছে এবারের এ টুর্নামেন্টে।
 
আজ তাদেরই একজন বড়সড় একটা সুখবর দিলেন পাকিস্তানকে। আর তা হলো- পাকিস্তানের নাগরিকত্ব চেয়ে আবেদন করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশ্বজয়ী প্রাক্তন অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। 

যেখানে অনেক ক্রিকেটার পাকিস্তানেই যেতে চায় না, সেখানে স্যামির নাগরিকত্ব চাওয়াটা দেশটির জন্য বড় একটা প্রাপ্তিই বটে। স্যামির নাগরিকত্ব চাওয়ার খবরটি নিশ্চিত করেছেন পিএসএলের দল পেশোয়ার জালমির মালিক জাভেদ আফ্রিদি।

শুক্রবার গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমরা ড্যারেন স্যামির জন্য সম্মানসূচক নাগরিকত্ব চেয়েছি। আবেদন এখন রাষ্ট্রপতির দফতরে আছে। আমি পিসিবির (পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড) চেয়ারম্যানকে স্যামির হয়ে কথা বলার জন্য অনুরোধ করেছি। যাতে স্যামির আবেদন পাশ হয়।’

এদিকে, বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাত থেকেই শুরু হয়েছে পিএসএলের নতুন এ আসর। টুর্নামেন্টে অংশ নিতে সর্বপ্রথম যে বিদেশি ক্রিকেটার পাকিস্তানে পৌঁছেছেন, তিনি হলেন স্যামি। 

পাকিস্তানে পা রাখার পর তিনি বলেছেন, ‘আমার চাওয়া পিএসএলের পঞ্চম আসর সবচেয়ে সেরা হোক। খেলোয়াড় ও সমর্থক হিসবে চলুন আমরা বিশ্বকে দেখিয়ে দেই, ক্রিকেটের জন্য পাকিস্তান কতোটা দুর্দান্ত জায়গা। আমিই প্রথম এলাম। এখানে পিএসএল হওয়াতে আমি খুব খুশি।

 

 

কিউটিভি/অনিমা /২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং/রাত ৯:২৫

শেয়ার করুন