পাকিস্তানের পাশেই আছে চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারত সফরে যাচ্ছেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। আর এই সফরে দু’দিন আগে তিনি জানালেন, কাশ্মীর প্রশ্নে এবং সব ইস্যুতে চীন পাকিস্তানের পাশেই আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে।  চীন সফরে ব্যস্ত পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে পাশে বসিয়ে  শি জিনপিং বলেছেন, কাশ্মীরের পরিস্থিতির দিকে আমরা ভালভাবে নজর রাখছি। পাকিস্তানের স্বার্থের সঙ্গে যে ইস্যুগুলি জড়িত, তাতে আমরা পাকিস্তানকে সমর্থন করব। 

তিনি বলেন, কাশ্মীর নিয়ে আমরা আমাদের পুরনো অবস্থানে অনড়। অর্থাৎ কাশ্মীর ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক বিষয়। আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে কাশ্মীর নিয়ে বিরোধ মিটিয়ে নিতে হবে।  শি জিনপিংয়ের ভারত সফরের আগে চীন থেকে ইমরানকে কার্যত ডেকে পাঠানো হয়। মঙ্গলবার তাঁর সঙ্গে দেখা করেন চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং।  তিনি বলেন, সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষায় পাকিস্তানের পাশে আছে চীন। 

চীনের সংবাদমাধ্যম সিনহুয়া জানিয়েছে, ইমরানকে বুধবার সকালে জিনপিং বলেছেন, কোনটা ঠিক কোনটা ভুল, সেটা আমাদের কাছে স্পষ্ট। কাশ্মীরসহ সব ইস্যুতে আগের মতোই পাকিস্তানের পাশেই থাকবে চীন। আন্তর্জাতিক বা আঞ্চলিক পরিস্থিতিতে যে পরিবর্তনই আসুক, পাকিস্তানের সঙ্গে চীনের বন্ধুত্ব বরাবরই পাথরের মতো শক্ত হয়েছে।

এদিকে, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেছেন, কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। সেখানে যা হচ্ছে তা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। বিশ্বের কোনও শক্তির অধিকারই নেই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানোর। চীন-পাকিস্তান আলোচনায় কাশ্মীর নিয়ে বিবৃতির তীব্র প্রতিবাদ করছে ভারত। এটা পুরোপুরি অনভিপ্রেত। আশা করি চীন নিজেও এটা জানে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দুদিনের সফরে ভারতে আসছেন চীনা প্রেসিডেন্ট জিনপিং। তামিলনাড়ু তাঞ্জাভুর জেলার কুম্ভকোনমের মাল্লাপুরম গ্রামের স্নিগ্ধ সবুজ রিসর্টে ঘরোয়া বৈঠক, আড্ডা, আলাপচারিতায় ব্যস্ত হয়ে উঠবেন মোদি ও জিনপিং। 

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন 

 

 

কিউটিভি/আয়শা/১০ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং /দুপুর ২:১১

শেয়ার করুন